Follow By Email/Contact By Email

Monday, April 30, 2012

নিজেই নিজের সেম্বিয়ান সেট হ্যাক করুন using TM Mobile Security

আপনি কি আপনার নোকিয়া স্ম্যার্টফোনের ব্যাপারে চিন্তিত । কি ঠিক না কি?
বেশির ভাগ সফটওয়্যার ইন্সটল এর ক্ষেত্রে কি সার্টফিকেট এরর মেসেজ দেয়।
এখন কি আর করবেন । বৃথা মেগাবাইট নষ্ট । হা! হা! হা!
আসুন পিচ্ছি এই টিপস্টা ফোলো করি আর হ্যাক করি নিজেই নিজের হ্যান্ডসেটটি।
চলুন নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করিঃ
এই ফাইলটি ডাউনলোড** করি । যা আছেঃ
  1. Trend Micro Mobile Security With 1Year Licence key
  2. TMquarentine.zip
  3. Rom Patcher Lite Version
  4. Patches
  5. Sambian Phone Hacking Ebook By Ochena Manush
  6. Xplore Software
ডাউনলোড শেষে নিচের ছবি অনুসারে কাজ করুন।
এক্সপ্লোর ওপেন করুন।নিচের ছবির মত দেখাবে।

C  মানে ফোন মেমরি আর  E মানে মেমরি কার্ড।  D Z আনতে হলে মেনু থেকে টুলসে যান তারপর কনফিগারেশন থেকে হাইডেন ফাইল , র‍্যাম , রম এসব মার্ক করে দেন। এককথায় যা আছে সব মার্ক করে দেন।
২>আপনি যেখানে ডাউনলোড করা ফাইলটি রেখেছেন তা এক্সপ্লোর দিয়ে নিচের ছবির মত ওপেন করুন।
৩>এবার টিএমকুয়ারটায়ন জিপ ফোল্ডার এ উপরের ছবির মতন ক্লিক করলে নিচের ছবির মতন আসবে।
৪> এবার মেনু>এক্সট্রেট টু তে যান নিচের ছবির মতন
৫>এবার নিচের ছবির মতন কোন ফোল্ডার এ ক্লিক না করে সোজা সি তে ক্লিক করুন।
৬> এরপর ফাইলটা সি তে এন্ট্রি করে নিচের ছবির মত দেখাবে।
৭> এবার রম প্যাচারটা ইনস্টল করেন ।
৮> তারপর প্যাচ ফোল্ডারটি এক্সট্র্যাক্ট করুন ডাইরেক্ট মেমরি কার্ডের রুট অবস্থায়।
৯> দেখুন নিচের ছবির মত হবে।
এখানে দেখছেন আমার মেমরি কার্ডে ফাইল মেনেজার থেকে ঢুকলেই যা দেখা যাচ্ছে তাই।
আর মূলত রূট অবস্থা বলতে আপনি যখন আপনার মেমরি কার্ডে ফাইল মেনেজার থেকে ঢুকবেন তখন যেরুপ টি দেখেন টিক সেই অবস্থা কে রূট অবস্থা বলে।
এখন আশা করি বুঝেছেন যে প্যাচ ফোল্ডারটি কিভাবে রাখতে হবে।
অর্থাৎ মেমরী কার্ডে ঢুকেই যেনো প্যাচ ফোল্ডারটি দেখা যায় ।
১০> এবার ট্রেন্ড মাইক্রো মোবাইল সিকিউরিটি ওপেন করে মেনুতে যান ।
সেখান থেকে নিচের ছবির মত যান


১১> এবার Quarantine List ক্লিক করলে নিচের ছবির মত ফাইল দেখতে পাবেন। তা রিস্টোর করতে হবে। এজন্য আপনি মার্ক অল করে রিস্টোর করেন সব রিস্টোর হয়ে যাবে।
১২> দেখুন নিচের ছবি টি রিস্টোর হবার পরের অবস্থা ইঙ্গিত করছে
১৩> এবার ROM PATCHER Lite Versionইন্সটল করুন। তারপরROM PATCHER+ ওপেন করুন।নিচের ছবির মত দেখাবে
১৪> এবার অপশন থেকে অল প্যাচ এপ্লাই দিলে নিচের মত ছবি দেখাবে।
তবে আপনি শুধুমাত্র XGrid দেখবেন না। কারণ আমি তা দিই নাই। দেখুন নিচের চিত্রে নীল রং হয়ে গেছে সবুজ।
১৫> এবার আবার অপশন এ গিয়ে একটি একটি করে প্যাচ এড ফ্রম অটু করে দেন। কাজ শেষ আপনার ফোন হ্যাক হয়ে গেছে।
মনে রাখবেন মেমরি কার্ডের প্যাচ ফোল্ডারটি কখনও ডিলিট করা যাবে না।
আর সব সময় উপরের চিত্রের মত রম প্যাচ প্লাসের প্যাচ গুলো সবুজ থাকতে হবে।
সবুজ না থাকলে আপনার সেট আবার আন হ্যাক হয়ে যাবে । তাই এ বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।

আমার এই ক্ষুদ্র লিখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ সবাইকে।
কোন সমস্যা হলে আমার সাথে নিচের যোগাযোগ ঠিকানায় যোগাযোগ করুন ।
চিঠি পাঠাতে পারেনঃ sakib_1724@yahoo.com OR mohd.sakib@facebook.com


Thursday, December 1, 2011

কিভাবে ISO FILE তৈরি করবেন এবং তা দিয়ে WINDOWS BOOTABLE CD/DVD তৈরি করবেন


কিভাবে ISO FILE তৈরি করবেন এবং তা দিয়ে WINDOWS BOOTABLE CD/DVD  তৈরি করবেন
  • প্রয়োজনীয় সফটওয়্যারঃ
  1. Ultra ISO
  2. Power ISO
  • ডাউনলোড লোকেশানঃ **Power ISO + Ultra ISO**
  • পিডি এফ ফাইলঃ আপনাদের সুবিধার্থে আমার এই সম্পূর্ণ পোস্টটা পিডি এফ ফাইল আকারে তৈরি করেছি। যাদের দরকার ডাউনলোড করবেন ।
  • কার্যপদ্ধতিঃ
  1. প্রথমে আপনার কাংকিত উণ্ডোজ এর সিডিটি আপনার পিসিতে প্রবেশ করান.
 
2.তারপর নিচের ছবির মত এতে মাঊসের ডান বাটনে চাপ দিয়ে সাব মেনু থেকে Ultra Iso>>Add to Iso file এ ক্লিক করে কোথায় সেভ করবেন তা দেখিয়ে দেন.

 
3.এইবার ISO FILE তৈরির কাজ চলছে দেখছেন



4.কাজ শেষ হলে আপানার সিডি রমে একটা ব্ল্যাংক সিডি বা ডিভিডি প্রবেশ করান । তারপর সেভ করা ISO FILE টি ওপেন করেন। তারপর নিচের ছবির মত বাটনে ক্লিক করলে বড় আকারের একটা লিস্ট আসবে সেখান থেকে নিচের ছবির মত  ক্লিক করুন।


5.আপনার সিডিটি Burn হওয়া শুরু করবে আর Burn হয়ে গেলে সিডি রম দিয়ে CD বের হয়ে যাবে।

***VISIT  http://www.google.com
Then write on GOOGLE Search:
site: mediafire.com Power ISO Crack
site: mediafire.com Ultra ISO Crack

প্রিয় পাঠক আমার এই ক্ষুদ্র পোস্ট এর দিখে নজর দেবার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ ।

মোহাম্মদ সাকিব উদ্দীন


Wednesday, October 26, 2011

পেন্ড্রাইভকে কিভাবে বুটাবল করে তা দিয়ে ঊন্ডোজ সেভেন সেটাপ দিবেন


যেভাবে আপনার পেন্ড্রাইভকে বুটাবল করবেন

যদি উন্ডোজ ৭ বা ভিস্তা করতে চান তবে ৪/৮জিবি পেন্ড্রাইভ লাগবে । আর উন্ডোজ এক্সপি এর ক্ষেত্রে কম হলেও চলে ।

প্রথমে Run(windows key+R) এ গিয়ে cmd লিখেন তারপর Enter দেন.
নিম্নে দেওয়া ছবি আসবে ।



এবার তাতে লিখেন Diskpartতারপর Enter দিন।তবে ডিস্ক পারটিশান ওপেন হবে।
নিচের ছবির মতঃ


এবার লিখুন Listdisk তারপর এন্টার দিলে নিচের মত একটা ছবি দেখবেনঃ

এবার DISKPART> এর পাশে Select disk 1 মানে DISKPART>  Select disk 1 লিখেন।
তাহলে নিচের ছবির  মত আসবেঃ


এবার আবার DISKPART> এর পাশে Clean লিখুন এবং Enter চাপ দিন।
তাহলে নিচের ছবির মত আসবেঃ









এবার আবার DISKPART> এর পাশে create partition primary লিখুন আর এন্টার চাপ দিয়ে নিচের ছবি পর্যবেক্ষণ করুনঃ

এবার আবার DISKPART> এর পাশে format recommended লিখুন আর এন্টার প্রেস করুন । তবে নিচের ছবিটি আসবেঃ

এবাবে পারসেন্টিজ ১-১০০ হবে তারপর নিম্নোক্ত ছবির মত


এবার আগের মত DISKPART> এর পাশে active লিখে এন্টার দিলে নিচের ছবিটি দেখতে পাবেনঃ

এবার সর্বশেষ বারের মত DISKPART> এর পাশে exit লিখে এন্টার দিন। তাহলে কাজ শেষ । Programme বন্ধ হয়ে যাবে।

এবার  Your Computer/CD/DVD থেকে ঊন্ডোজ সেভেনের ফাইল গুলো কপি করে দেন আপনার পেন্ড্রাইভে । আর অবশ্যই  আপনার Bios Setting(Matherboard অনুসারে F2/Del/F12  এসব কী প্রেস করে Bios Setting প্রবেশ করা হয়)  থেকে USB Drive/Boot to USB/Removal disk এসব Enable  করতে হবে

এবার এই পেন্ড্রাইভ দিয়ে আপনি উন্ডোজ সেভেন সেটাপ দিতে পারবেন ।যদি উন্ডোজ সেভেনের ফাইল তাতে থাকে ।

প্রমাণঃ আমি নিজে আমার ৪জিবি পেন্ড্রাইভ এ করেছি। আমি এই নিয়মে ঊন্ডোজ ৭
         করেছি এবং সফল হয়েছি । এখন আপনাদের পালা ।

উপকারিতাঃ ১) এতে উইন্ডোজ সেটাপ দ্রুত হয়
              ২) সিডি রম না থাকলে এই পদ্ধতি কাজে আসে
              ৩) হার্ড ডিস্কে উইন্ডোজের ফাইল থাকলে তা দিয়ে কাজ করা সম্ভব                              
                  হয় ফলে নতুন করে সিডি কিনতে হয় না ।
বিঃদ্রঃ বুট প্রবলেম হলে I:\Boot\Bootsect.exe /NT60 I: command দিবেন।
                            যেখানে I:  হচ্ছে আপনার pendrive

আশা করি কোন সমস্যা হবে না । সমস্যা হলে কমেন্ট দিবেন ।
যোগাযোগঃ                      >>>এইখানে<<<
ফেইসবুক লাইকঃ যদি আমার পোস্ট পছন্দ হয়
                                               তবে                                  
                        >>>লাইক<<<
                                দিন






  

পেন্ড্রাইভকে কিভাবে বুটাবল করে তা দিয়ে ঊন্ডোজ সেভেন সেটাপ দিবেন


যেভাবে আপনার পেন্ড্রাইভকে বুটাবল করবেন

যদি উন্ডোজ ৭ বা ভিস্তা করতে চান তবে ৪/৮জিবি পেন্ড্রাইভ লাগবে । আর উন্ডোজ এক্সপি এর ক্ষেত্রে কম হলেও চলে ।

প্রথমে Run(windows key+R) এ গিয়ে cmd লিখেন তারপর Enter দেন.
নিম্নে দেওয়া ছবি আসবে ।



এবার তাতে লিখেন Diskpartতারপর Enter দিন।তবে ডিস্ক পারটিশান ওপেন হবে।
নিচের ছবির মতঃ


এবার লিখুন Listdisk তারপর এন্টার দিলে নিচের মত একটা ছবি দেখবেনঃ

এবার DISKPART> এর পাশে Select disk 1 মানে DISKPART>  Select disk 1 লিখেন।
তাহলে নিচের ছবির  মত আসবেঃ


এবার আবার DISKPART> এর পাশে Clean লিখুন এবং Enter চাপ দিন।
তাহলে নিচের ছবির মত আসবেঃ









এবার আবার DISKPART> এর পাশে create partition primary লিখুন আর এন্টার চাপ দিয়ে নিচের ছবি পর্যবেক্ষণ করুনঃ

এবার আবার DISKPART> এর পাশে format recommended লিখুন আর এন্টার প্রেস করুন । তবে নিচের ছবিটি আসবেঃ

এবাবে পারসেন্টিজ ১-১০০ হবে তারপর নিম্নোক্ত ছবির মত


এবার আগের মত DISKPART> এর পাশে active লিখে এন্টার দিলে নিচের ছবিটি দেখতে পাবেনঃ

এবার সর্বশেষ বারের মত DISKPART> এর পাশে exit লিখে এন্টার দিন। তাহলে কাজ শেষ । Programme বন্ধ হয়ে যাবে।

এবার  Your Computer/CD/DVD থেকে ঊন্ডোজ সেভেনের ফাইল গুলো কপি করে দেন আপনার পেন্ড্রাইভে । আর অবশ্যই  আপনার Bios Setting(Matherboard অনুসারে F2/Del/F12  এসব কী প্রেস করে Bios Setting প্রবেশ করা হয়)  থেকে USB Drive/Boot to USB/Removal disk এসব Enable  করতে হবে

এবার এই পেন্ড্রাইভ দিয়ে আপনি উন্ডোজ সেভেন সেটাপ দিতে পারবেন ।যদি উন্ডোজ সেভেনের ফাইল তাতে থাকে ।

প্রমাণঃ আমি নিজে আমার ৪জিবি পেন্ড্রাইভ এ করেছি। আমি এই নিয়মে ঊন্ডোজ ৭
         করেছি এবং সফল হয়েছি । এখন আপনাদের পালা ।

উপকারিতাঃ ১) এতে উইন্ডোজ সেটাপ দ্রুত হয়
              ২) সিডি রম না থাকলে এই পদ্ধতি কাজে আসে
              ৩) হার্ড ডিস্কে উইন্ডোজের ফাইল থাকলে তা দিয়ে কাজ করা সম্ভব                              
                  হয় ফলে নতুন করে সিডি কিনতে হয় না ।
বিঃদ্রঃ বুট প্রবলেম হলে I:\Boot\Bootsect.exe /NT60 I: command দিবেন।
                            যেখানে I:  হচ্ছে আপনার pendrive

আশা করি কোন সমস্যা হবে না । সমস্যা হলে কমেন্ট দিবেন ।
যোগাযোগঃ                      >>>এইখানে<<<
ফেইসবুক লাইকঃ যদি আমার পোস্ট পছন্দ হয়
                                               তবে                                  
                        >>>লাইক<<<
                                দিন